বরিশালে কলেজছাত্র সোহাগ হত্যা মামলায় ২ জনের ফাঁসি, ৪ জনের যাবজ্জীবন

বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশালের উজিরপুরে কলেজছাত্র সোহাগ সেরনিয়াবাত হত্যা মামলায় ২ জনকে ফাঁসি এবং ৪ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে বরিশালের জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক টি এম মুসা এ রায় দেন।

ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (বিশেষ পিপি) লস্কর নুরুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ফাঁসিপ্রাপ্তরা হলেন, মামলার প্রধান আসামি দাদা বাহিনীর প্রধান জিয়াউল হক লালন ও রিয়াদ সর্দার। আসামি মামুন, ইমরান, বিপ্লব ও ওয়াসিম সরদারকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

মামলার নথি অনুযায়ী, ২০১৪ সালের ৪ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৮টার দিকে সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী দলটি চাঁদার দাবিতে দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র সোহাগ সেরনিয়াবাতকে কুপিয়ে হত্যা করে। এসময় সোহাগের সাথে থাকা বন্ধু সাইফুল ইসলামকে আহত করে।

এ ঘটনায় সোহাগ সেরনিয়াবাতের মামা খোরশেদ আলম বাদী হয়ে উজিরপুর থানায় ১৩ জনের নামে হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে ওই বছরের ১০ নভেম্বর ১৬ জনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে।

মামলায় ৩১ জনের সাক্ষী গ্রহণ করে আদালত এই রায় প্রদান করেন। এই রায়ে সোহাগ সেরনিয়াবাতের বাবা ফারুক হোসেন সেরনিয়াবাত বলেন, রায়ে আমরা সন্তুষ্ট। তবে যারা বেকসুর খালাস পেয়েছেন তারাও হত্যায় জড়িত ছিলেন। রায়ের পূর্ণাঙ্গ আদেশের কপি পেলে তা নিয়ে আমি উচ্চ আদালতে আপিল করবো। আশা করি হত্যায় জড়িত থাকার অপরাধে উচ্চ আদালত তাদের শাস্তি দিবে।

নিহতের মা শাহনাজ পারভীন বলেন, রায়ে খুশি হয়েছি। তবে খালাসপ্রাপ্ত ১০ জনের সাজা দিলে আরও ভালো হতো। তারাও আমার ছেলের হত্যায় জড়িত ছিল।

বাদীর আইনজীবী আনিসুর রহমান বলেন, অপরাধ করলে শাস্তি পেতেই হবে, যা এই রায়ের মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

এইরকম আরো খবর: