মৃত্যুকে উপহাস করে সনি-র‌্যাংগসের কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টাইন অফার!

মুহাম্মদ দিদারুল ইসলাম: পৃথিবীতে এক শ্রেণীর মানুষ আছে যারা চরম দুঃসময়ে এসে ও নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য ঘাপটি মেরে বসে থাকে। মৃত্যুকে পুঁজি করে নিজের আখের গোছাতে খিলখিলিয়ে হাসে আর পকেট ভর্তি করে মন্দের ভালোতে বিশ্ব সয়লাভ করে। এদের একমাত্র চিন্তাই থাকে দশের ঘাড়ে পা দিয়ে নিজের ঘরের ফাউন্ডেশন দিতে।

দুষ্ট লোকের নিষ্ঠুর চরিত্র বর্ণনা করতে গিয়ে মানুষ একটি কথা প্রায় বলে, কারো ঘর পোড়ে, কেউ আলু পোড়া খায়..। এ যেন তার চেয়েও বড় নিষ্ঠুরতার সাক্ষী! বাংলাদেশে এমনই এক উল্টো পথে যাওয়া রাবণের দেখা মিলল আজ।

করোনা ভাইরাসের মহামারীতে মানুষের চরম দুঃসময়ে এসেও মৃত্যুকে উপহাস করে কোভিড-১৯ লাকি ফ্যামিলি কোয়ারেন্টাইন অফার চালু করেছে সনি-র‌্যাংগস অনলাইন স্টোর! যা নিয়ে ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে ব্যাপক বিতর্ক ও সমালোচনা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সনি-র‌্যাংগসের পেইজে দেখা যায় সনি টিভি, কেলভিনেটর ফ্রিজ ও এসি-তে তারা ৪০% থেকে ৬২% ডিসকাউন্ট ঘোষণা করেছে! এই অফার চালু থাকবে ০৪ এপ্রিল থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত।

আবার স্পষ্ট উল্লেখ করে দিয়েছে কোভিড -১৯ কোয়ারেন্টাইন চলাকালীন সময়ের মধ্যে প্রতিদিন শুধু মাত্র এই অফার চালু থাকবে।

পৃথিবীর অধিকাংশ বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন কোভিড-১৯ এর কারণে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে পৃথিবী সবচেয়ে বড় বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে।

এই সংকট কাটিয়ে উঠতে পারবে কিনা সেই খবর এখনো পর্যন্ত কারো জানা নেই। আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৯ লক্ষ ছাড়িয়ে গেছে, মৃত্যুর সংখ্যা ৫০ হাজার ছুঁয়ে ফেলা সময়ের ব্যাপার মাত্র। প্রতিটি মুহূর্তে সবাই একটি আতঙ্ক নিয়ে সময় পার করছে, এই বুঝি প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস এসে আমাদের জীবনকে ধ্বংস করে দিবে!

শুধুমাত্র আক্রান্ত রোগী কিংবা তার স্বজনরা নয় অর্থনৈতিকভাবে সারাবিশ্ব যে ক্ষতির সম্মুখীন হতে যাচ্ছে তা কিভাবে কাটিয়ে উঠবে সে কথা ভাববার সময় হচ্ছে না কারোর। পৃথিবীর গভীরতম অসুখ এবং মহামারীর এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে মানুষ যুদ্ধ করছে, এ যুদ্ধ শুধুমাত্র বাঁচা মরার লড়াই।

মধ্যবিত্ত কিংবা দরিদ্র মানুষদের কথা বাদই দিলাম। যারা অনেক ধনী, অন্তত যাদের দুই বছর বসে খাওয়ার সামর্থ্য রয়েছে তারাও আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। অনেক বিলাসী জীবন যাপন করা মানুষটির গলা দিয়ে পর্যন্ত খাবার নামতে চাইছে না। মানুষের প্রয়োজনীয় চাহিদা যে খাবার তার যোগান দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে সবাইকে।

প্রতিটি মানুষ যেখানে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য এবং ওষুধ ছাড়া কিছুই কল্পনাই করতে পারছে না সেখানে টেলিভিশন কিংবা ফ্রিজ ক্রয় করা নিতান্তই হাস্যকর এবং দৃষ্টিকটু!

বর্তমান সময়ে সারা বাংলাদেশে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। অনেকগুলো প্রতিষ্ঠান অসহায় মানুষদের সহায়তা করতে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে অর্থ জমা দিচ্ছে। আবার অনেকেই ব্যক্তিগতভাবে সাধারণ দিনমজুর এবং খেটে খাওয়া মানুষগুলো কে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য দিয়ে সহযোগিতা করছে।

কিন্তু সবাই যখন করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থামানোর পাশাপাশি অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে ব্যস্ত তখনই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভেসে বেড়াচ্ছে সনি-র‌্যাংগসের কোভিড-১৯ ফ্যামিলি অফার।

এই অফার মানুষ গ্রহণ করবে কিনা জানিনা। তবে এখন যে যুদ্ধে আমরা লড়াই করছি সেই যুদ্ধের চিরশত্রু কোভিড-১৯ ভাইরাসের সঙ্গে সঙ্গে এই ধরনের চরম কাণ্ডজ্ঞানহীন এবং নিষ্ঠুর ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান গুলোর বিরুদ্ধেও লড়াই করার সময় এসে গেছে।

মুহাম্মদ দিদারুল ইসলাম
কবি ও সাংবাদিক

ঢা/এফএইচপি

(Visited 1 times, 1 visits today)