হাত মেলানোর কায়দা কানুন

লাইফস্টাইল ডেস্ক: রাস্তাঘাটে হাঁটতে চলতে কতশত কাজই না করতে হয়। তার মধ্যে অন্যতম কাজ হচ্ছে কুশল বিনিময় ও হাত মেলানো বা করমর্দন।

নিয়মিতই হাত মেলানোর কাজ আপনাকে করতে হয়। কিন্তু আপনি জানেন কি- এই হাত মেলানোর কত কায়দা কানুন আছে? কি কি করতে হয় হাত মেলানোর সময় এখনই জেনে নিন।

কখন হাত মেলাবেন:

কারও সঙ্গে পরিচিত হলে বা আলাপ শেষে বিদায় নেওয়ার সময়। ব্যবসায়িক অথবা সামাজিক সভা সাক্ষাতের সময়ও হাত মেলানো দস্তুর।

এছাড়া সৌহার্দ্য জানানোর জন্যও যদি জুতসই মনে হয় তাহলে হাত মেলাতে বাধা নেই। আবার কেউ হাত বাড়ালে তাকেও নিরাশ করা ঠিক হবে না।

বাড়িয়ে দাও তোমার হাত:

নিজেই আগে থেকে হাত বাড়িয়ে দিন। এতে পরিস্থিতির ওপর যেমন আপনার নিয়ন্ত্রন প্রতিষ্ঠিত হবে তেমনি আপনার ব্যক্তিত্বের একটি দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব পড়ে যাবে অপর প্রান্তে থাকা ব্যক্তির ওপর।

নারী-পুরুষ নির্বিশেষেই এই নিয়ম খাটে। লজ্জা শরম না করে আগে হাত বাড়িয়ে দিলেই বরং সুরুচির প্রকাশ পাওয়া যায়।

সোজা ডান হাত বাড়িয়ে দিন:

হাতের তালু উল্টা করে বা চিৎ করে বাড়ালে অসৌজন্যতা প্রকাশ পায়। বলার অপেক্ষা রাখে না দুই হাতের তালুর মিলনেই একটি সফল করমর্দন হয়।

আর ডানহাতি বামহাতি যাই হোন না কেন সবসময় ডান হাত বাড়িয়ে দেওয়াই নিয়ম।

তবে ডান হাত না থাকলে বা মারাত্মকভাবে আহত হলে কিছু করার নেই। বাম হাত বাড়িয়ে দিলে কেউ ‘মাইন্ড’ করবে না।

দৃঢ় হাতে হাত মেলান:

হাত মেলানোর সময় অপরের হাত দৃঢ়ভাবে ধরুন। তবে দৃঢ়ভাবে ধরতে গিয়ে খেয়াল রাখবেন তিনি যেন ব্যথা না পান। সেক্ষেত্রে দ্বিতীয়বার আপনার সঙ্গে করমর্দনের আগে তিনিও দুবার ভাববেন।

ওপর আর নিচে কিন্তু নয় আগে পিছে:

করমর্দনের সময় উলম্ব/ঋজু ভঙ্গিতে হাত নাড়ুন। ডানে বায়ে বা হাত দোলানো থেকে বিরত থাকুন।

বেশি ঝাঁকাতে যাবেননা যেন:

ভুলে যান ‘যত ঝাকি তত নেকি’। একবার বড়জোর দু’বার হাত ঝাঁকান। সেটাই নিয়ম। বেশিক্ষন ঝাঁকালে বিরক্তির উদ্রেক হবে।

তাছাড়া উইকিপিডিয়াও বলছে একটি আদর্শ হ্যান্ডশেক-এর স্থায়িত্ব হবে বড়জোর ৫ সেকেন্ড।

সাবধান বাম হাতের বেলায়ও:

ডান হাত মেলানোর সময় বিনয় প্রকাশ করতে কখনওই বাম হাতে এদিয়ে দেবেন না। আবার বাম হাত পকেটে রেখে দেওয়াও ঠিক ভদ্রতা নয়। বড়জোর কাঁধ স্পর্শ করা যেতে পারে। এটা আনুষ্ঠানিক আচরণবিধির পরিপন্থী।

চোখে চোখ রেখে:

হ্যান্ডশেক করার সময় চোখে চোখ রেখে সৌজন্য বিনিময় করুন। সেটা হতে পারে ‘শুভ সকাল’ অথবা ‘আপনি কেমন আছেন’ বা যে কোনও কিছু।

ঢা/তাশা

(Visited 4 times, 1 visits today)