সালমান শাহের হত্যার বিচার চেয়ে ভক্তদের মানববন্ধন

  •  
  •  
  •  
  •  

বিনোদন ডেস্ক: বাংলা সিনেমার একসময়কার তুমুল জনপ্রিয় নায়ক সালমান শাহ হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু বিচার চেয়ে মানববন্ধন করেছেন তার ভক্তরা। ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর ক্ষণজন্মা সবাইকে কাঁদিয়ে চলে যান না ফেয়ার দেশে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

ভক্তরা অভিযোগ করেন, সালমান শাহ আত্মহত্যা করেননি। তাকে হত্যা করা হয়েছে। পিআইবি মনগড়া প্রতিবেদন দিয়েছে। আমরা সালমান শাহ হত্যার বিচার চাই।

এদিন ঢাকা মহানগর হাকিম সাইদুজ্জামান শরীফের আদালতে মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন গ্রহণের জন্য দিন ধার্য ছিল। আজ মামলার বাদী (সালমান শাহের মা) লন্ডনে থাকায় সময় চেয়ে আবেদন করেন তার আইনজীবী। আদালত আবেদন মঞ্জুর করে ২০ এপ্রিল দিন ধার্য করেন।

পিবিআইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলা চলচ্চিত্রের তুমুল জনপ্রিয় নায়ক সালমান শাহ হত্যাকাণ্ডের শিকার হননি, পারিবারিক কলহের জেরে আত্মহত্যা করেছিলেন তিনি।

পিবিআই প্রধান বলেন, তদন্তকালে ঘটনার সময় উপস্থিত ও ঘটনায় সংশ্লিষ্ট ৪৪ সাক্ষীর জবানবন্দি ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬১ ধারায় লিপিবদ্ধ করা হয়। ১০ সাক্ষীর সাক্ষ্য ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় লিপিবদ্ধ করা হয়। পাশাপাশি ঘটনার সংশ্লিষ্ট আলামত জব্দ করা হয়। এসব বিষয় পর্যালোচনায় দেখা যায়, চিত্রনায়ক সালমান শাহ পারিবারিক কলহের জেরে আত্মহত্যা করেছেন। হত্যার অভিযোগের কোনো প্রমাণ মেলেনি।

পিবিআইয়ের তদন্ত প্রতিবেদনে সালমান শাহের আত্মহত্যার পাঁচটি কারণ উল্লেখ করা হয়েছে।

১৯৯৬ সালে নিজ ঘরে সালমান শাহ’কে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। ওই ঘটনায় তখন অপমৃত্যুর মামলা করেন তার বাবা কমরউদ্দিন আহমদ চৌধুরী (প্রয়াত)। পরে ১৯৯৭ সালের ২৪ জুলাই ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে অভিযোগ করে মামলাটি হত্যা মামলায় রূপান্তরিত করার আবেদন জানান তিনি। অপমৃত্যু মামলার সঙ্গে হত্যাকাণ্ডের অভিযোগের বিষয়টি একসঙ্গে তদন্ত করতে অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি) নির্দেশ দেন আদালত।

ঢা/এসআর

ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১ ১২:৫১

(Visited 6 times, 1 visits today)