সর্দি-কাশি দূর আখের রসে

সর্দি-কাশি দূর আখের রসে
  •  
  •  
  •  
  •  

ঢাকা১৮ ডেস্ক: আখের রস অতি চমৎকার পুষ্টিগুনে ভরপুর। আখের রস লিভার পরিষ্কার এবং ডিটক্সাইফাই করতে সহায়তা করে। সেই সাথে মনকে সতেজ এবং প্রফুল্লো রাখে। এছাড়া অপুষ্টির শিকার মানুষের স্বাস্থ্য রক্ষায় কার্যকরী ভুমিকা রাখতে পারে। স্ট্রেস, ক্লান্তি হাত থেকে বাঁচতে এছাড়া গর্ভবতী নারী, ডায়াবেটিস রোগিরাও দৈনিক নিয়মিত আখের রস পান করতে পারেন

আখের রসের উপকারিতা:

১/ আখের রস ক্যান্সার প্রতিরোধেও ভূমিকা রাখে।

২ / নিয়মিত আখের রস পান করলে শরীরের ক্ষত ভাল হয়।

৩/ আখের রস ঠান্ডালাগা প্রতিরোধ ও দুর্বলতা দুর করতে সহায়তা করে।

৪/ বদহজম, গ্যাস প্রভৃতির সমস্যার জন্য আখের রস অত্যান্ত উপকারী।

৫/ ক্যালসিয়াম এবং ফসফরাস থাকায় যা শরীরের হাড়কে মজবুত করে।

৬/ আখের রসে উচ্চমাত্রার K2 থাকায় কোষ্ঠ কাঠিন্য দুর করতে সহায়তা করে।

৭/ আখের রস পাকস্থলি, কিডনী, হার্ট, চোখে এবং মনকে সতেজ এবং প্রফুল্লো রাখে।

৮/ আর্দ্রতা রজায় রেখে ত্বককে লাবন্যময় করে তোলতে আখের রস কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

৯/ আখের রসের ফ্রুটটোজ এবং গ্লুকোজ, সুক্রাজের চেয়ে খুবধীর গতিতে রক্তের চিনির মাত্রা বাড়ায়।

১০/ আখের রসে প্রচুর ভিটামিন এবং মিনারেলস থাকায় রোগ প্রতিরোধ সহায়তা করে মানুষকে রক্ষা রাখে।

১১ / জন্ডিসে হওয়ার ফলে শরীরে গ্লুকোজের মাত্রা কমে তা প্রতিরোধে নিয়মিত ৩-৪ গ্লাস আখের রস পান করলে আরোগ্য লাভ হয়।

১২/ আখের রসে আয়রন ,ফলিক অ্যাসিড এবং ফলিয়েট থাকায় গর্ভবতীদের একাধিক সমস্যা দূর ও শিশুর মস্তিস্ক বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

১৩/ আখের রসে প্রাকৃতিক চিনি থাকায় রক্তের গ্লুকোজ মাত্রাকে উচ্চামাত্রায় উঠাতে দেয়না, তাই ডাক্তারের সহায়তা নিয়ে ডায়বেটিস রোগীরা আখের রস খেতে পারেন।

ঢাক/এসআর

নভেম্বর ১৮, ২০২০ ৯:৪৮

(Visited 26 times, 1 visits today)