সমূদ্রসীমা পর্যবেক্ষনের নতুন রাডারটির রেন্জ ৫০০ কিঃমি

  •  
  •  
  •  
  •  

ঢাকা১৮ ডেস্কঃ বাংলাদেশের সমূদ্রসীমার আকাশ নিরবিচ্ছিন্নভাবে পর্যবেক্ষনের জন্য বরিশালে কিছুদিন আগে বিমানবাহিনীর যুক্ত হওয়া রাডারটির সক্ষমতা কিংবা রেন্জ ৫০০ কিঃমি। ন্যাটো কোয়ালিটির ইতালির তৈরী RAT 31 DL রাডারটি State of the art টেকনোলজির 3D এয়ার ডিফেন্স সার্ভ্যাইল্যান্স রাডার।

রাডারটি মূলতঃ একটি ‘ল্যান্ড বেজড আর্লি ওয়ার্নিং এয়ার ডিফেন্স র‌্যাডার’ এবং একইসাথে ‘ট্যাকটিক্যাল ব্যালাস্টিক মিসাইল ডিফেন্স রাডার। ল্যান্ড বেজড হলেও এটি আসলে ট্রান্সপোর্টেবল। বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীতে ব্যাবহৃত C-130, বা এর বাহন বা ট্রেনে করে পরিবহন করা সম্ভব।

 

এই রাডারের রয়েছে চমৎকার ইলেকট্রনিক কাউন্টার কাউন্টার মেজারস ক্যাপাসিটি। যার কারণে জ্যামারের উপস্হিতি থাকা স্বত্তেও এটি নিজেকে জ্যামারের হাত থেকে রক্ষা করতে সক্ষম। ECM এনভায়রনমেন্ট মনিটরিং এর জন্যে এতে রয়েছে আলাদা ECM মনিটরিং রিসিভার। রয়েছে IFF ক্যাপাসিটি।

তাছাড়া পিক পাওয়ার কমিয়ে এন্টি রেডিয়েশন মিসাইলের হাত থেকে নিজেকে লুকিয়ে রাখার প্রযুক্তিগত ক্ষমতাও রয়েছে এর। রাডারটির সর্বমোট রেন্জ (আকাশে) – ৩০.৫ কিঃমি উচ্চতায় এবং প্রসস্ততায় ৫০০ কিঃমি। সর্বমোট ওজন ৩০,০০০ কেজি। প্রথমবার রাডারটিকে স্থাপন অথবা সম্পূর্ণভাবে কর্মক্ষম করে তুলতে ৫ জন মানুষের ২ ঘন্টার মতো সময় লাগে।

[ঢা-এফএ]

ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২১ ৬:০৪

(Visited 22 times, 1 visits today)