শ্রমিকদের কথা মনে করে কাঁদলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি
  •  
  •  
  •  
  •  

পুরনো টেকনোলজি দিয়ে পাটকলগুলো টিকতে পারছে না। মাসের পর মাস লস করছে। এটা শ্রমিকদের দায় নয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, শ্রমিকরা বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে ছিল, এদের পুনর্বাসন করতে হবে, এদেরকে আরও ট্রেনিং দেয়া যায় কি-না সে বিষয়ে জানাতে বলেন প্রধানমন্ত্রী। এসময় শ্রমিকদের কথা মনে করে প্রধানমন্ত্রী চোখের পানি ফেলেছেন বলে জানান বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী।

শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে এসব জানিয়েছেন, বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী আরও বলেন, বন্ধ পাটকল শ্রমিকদের পুনর্বাসন করা হবে। বাজেটে অর্থ ছাড় হলেই শোধ করা হবে সমস্ত বকেয়া। সেইসাথে পিপিপির মাধ্যমে এসব পাটকলগুলো আবার চালু করা হবে।

ধারাবাহিক লোকসানে থাকা ২৬টি পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্তের যৌক্তিকতা তুলে ধরতে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর বাসভবনে আয়োজন করা হয় সংবাদ সম্মেলনের।

সংবাদ সম্মেলনে শ্রম প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ানকে সাথে নিয়ে মন্ত্রী দাবি করেন, সোনালি আঁশের সুদিন ফিরাতে বদ্ধ পরিকর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই পিপিপির মাধ্যমে মিলগুলি আবার চালু করার পরিকল্পনা নিচ্ছে সরকার। তবে তার আগে, শোধ করা হবে প্রায় ২৫ হাজার শ্রমিকদের সব পাওনা। অপেক্ষা শুধু অর্থছাড়ের।

শ্রম প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, প্রধানমন্ত্রী কোনো শ্রমিককে চাকরিচ্যূত করেননি; বরং পাওনা পরিশোধ করে অবসরে পাটিয়েছেন। সব ঠিক থাকলে, আগামী তিন থেকে চার মাসের মধ্যে কলগুলো ফের সচল হবে বলে আশা করেন তিনি।

(Visited 8 times, 1 visits today)