শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি সংসদে

শিক্ষার্থীরা
  •  
  •  
  •  
  •  

ঢাকা১৮ প্রতিবেদক: করোনা পরিস্থিতির কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষাব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। ভার্চুয়াল ক্লাস হলেও গ্রামের শিক্ষার্থীরা লেখাপড়ায় পিছিয়ে পড়ছে বলে যত দ্রুত সম্ভব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার পক্ষে দাবি সাবেক প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোতাহার হোসেন ।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণে ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনজন সংসদ সদস্য এ দাবি জানান। এ সময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

অধিবেশনে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ও সাবেক প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোতাহার হোসেন বলেন, যতদ্রুত সম্ভব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা। করোনার কারণে শিক্ষায় আমরা পিছিয়ে পড়ছি। যতই ভার্চ্যুয়াল বলুন, আর যাই বলুন গ্রামের স্কুলের ছেলে-মেয়েরা কিছু করতে পারছে না।

চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন বলেন, করোনার কারণে শিক্ষা দিকটা অনেক দুর্বল হয়ে গেছে। ছেলে-মেয়েরা লেখাপড়া করতে পারছে না। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় গ্রাম-গঞ্জের ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়ার ক্ষতি হচ্ছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করবো, বিষয়টি ভেবে দেখার। শিক্ষার্থীরা যাতে লেখাপড়া করতে পারে সেজন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করে।

বগুড়া-৭ আসনের সংসদ সদস্য মো. রেজাউল করিম বাবলু বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু করা যায় কিনা ভেবে দেখা দরকার। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারণে শিক্ষার পরিবেশ ভঙ্গুর অবস্থার মধ্যে চলে গেছে। বিষয়টি আরও পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে জানুয়ারি মধ্যে চালু করলে ভালো হয়। তিনি সারাদেশের মসজিদের ইমামদের জন্য একটি ভাতা চালু করা এবং মসজিদের বিদ্যুতের বিল মওকুফ করার প্রস্তাব করেন।

ঢা/এসআর

জানুয়ারি ২০, ২০২১ ৫:২০

(Visited 27 times, 1 visits today)