লকডাউনের মধ্যেও দূষিত শহরের তালিকায় ঢাকা সপ্তম

লকডাউনের মধ্যেও দূষিত শহরের তালিকায় ঢাকা সপ্তম
  •  
  •  
  •  
  •  

ঢাকা১৮ ডেস্ক: প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সারা বিশ্বব্যাপী লকডাউন অব্যাহত রয়েছে। এরইমধ্যে প্রকৃতি তার স্বরূপে ফিরে এসেছে, দূষণের পরিমাণ ও কমে এসেছে গোটা পৃথিবীতে।

এক সময় লকডাউনের কারণে যে সমস্ত শহর গুলোতে দূষণের মাত্রা কমে এসেছিল তার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছিল ঢাকা শহর। কিন্তু লকডাউন শিথিলের সঙ্গে সঙ্গে আবারও সেই আগের অবস্থানে ফিরে গেছে।

রবিবার (১৭ মে) সকালে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে (একিউআই) স্কোর অনুযায়ী ১২৪ নিয়ে বিশ্বে দূষিত শহরের তালিকায় আবারও ৭ম স্থানে উঠে এসেছে ঢাকা।

এইভাবে দূষিত শহরের তালিকায় জায়গা করে নেয়াটা ‘সংবেদনশীল গ্রুপের জন্য অস্বাস্থ্যকর’ বলে নির্দেশ করে।

মাত্র একদিনের ব্যবধানে সকালের এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের স্কোর অনুযায়ী ঢাকা শহরের বাতাসের এই অবনতি হয়েছে।

এর আগে শনিবার সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে ৬৪ স্কোর নিয়ে ২৮তম অবস্থানে ছিল ঢাকা। যা ঢাকার বাতাসের মানকে ‘সহনীয়’ বলে নির্দেশ করে।

অন্যদিকে, তালিকার তিন শীর্ষস্থানের মধ্যে যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে দিল্লি, লাহোর এবং সাংহাই।

প্রতিদিনের বাতাসের মান নিয়ে তৈরি করা একিউআই সূচক একটি নির্দিষ্ট শহরের বাতাস কতটুকু নির্মল বা দূষিত সে সম্পর্কে তথ্য দেয়। এছাড়া মানুষের জন্য এটা কোন ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি হতে পারে তা জানতে সাহায্য করে।

নিয়ম অনুযায়ী একিউআই সূচকে ৫০ এর নিচে স্কোর থাকার অর্থ হলো— বাতাসের মান ভালো। একিউআই স্কোর ৫১ থেকে ১০০ হলে বাতাসের মান গ্রহণযোগ্য বলে ধরে নেওয়া হয়। একিউআই স্কোর ১৫১ থেকে ২০০ হলে নগরবাসীর প্রত্যেকের স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব পড়তে পারে, বিশেষ করে শিশু, বৃদ্ধ ও রোগীরা স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়তে পারেন।

একিউআই স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে স্বাস্থ্য সতর্কতাসহ তা জরুরি অবস্থা হিসেবে বিবেচিত হয়। এ অবস্থায় শিশু, প্রবীণ ও অসুস্থ রোগীদের বাড়ির ভেতরে এবং অন্যদের বাড়ির বাইরের কার্যক্রম সীমাবদ্ধ রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে। একিউআই স্কোর ৩০১ থেকে ৫০০ বা তারও বেশি হলে বাতাসের মান ঝুঁকিপূর্ণ মনে করা হয়। এসময় স্বাস্থ্য সতর্কতাসহ প্রত্যেক নগরবাসীর জন্য জরুরি অবস্থা হিসেবে বিবেচিত হয়।

ঢা/ডিআই/আরকেএস

মে ১৭, ২০২০ ৭:১২

(Visited 8 times, 1 visits today)