মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন প্রিয়াঙ্কা জামান

  •  
  •  
  •  
  •  

বিনোদন ডেস্ক: একজন মডেল হিসেবে শোবিজে পরিচিতি মুখ প্রিয়াঙ্কা জামান। মিউজিক ভিডিও এবং নাটকেও কাজ করেছেন তিনি। শোবিজ অঙ্গনের মানুষের সঙ্গে দারুণ সম্পর্ক তার।

তার শারীরিক অবস্থা ক্রমেই খারাপ হতে থাকলে ২৬ সেপ্টেম্বর গুরুতর অবস্থায় তাকে রাজধানীর ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তখন জানানো হয়, প্রিয়াঙ্কা জামানের রক্তে মারাত্মক সংক্রমণ হয়েছে। পরিস্থিতির দ্রুত অবনতি ঘটলে পরদিন প্রিয়াঙ্কা জামানকে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এরপর ২৯ সেপ্টেম্বর খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এই মডেলকে এখন হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে।

তাকে লাইফ সাপোর্ট দেয়া হয়েছে। কৃত্রিম উপায়ে অক্সিজেন দেয়া হচ্ছে। হার্ট মাত্র ৩০ ভাগ কাজ করছে। এ ছাড়া শরীরের অন্যান্য অঙ্গ মোটামুটি কাজ করছে।

আজ খবর নিয়ে জানা যায়, মডেল অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা জামানের অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। কিছুটা নড়াচড়া করছেন।

তবে নিজ থেকে শ্বাস নেওয়া বা কথা বলার মতো অবস্থায় নেই। এখনো তাঁকে কৃত্রিম উপায়ে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে।

অক্সিজেনের পরিমাণ কিছুটা বাড়ানো হয়েছে। তবে ডাকলে সাড়া দিচ্ছেন না। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, তাঁর শ্বাসপ্রশ্বাস প্রক্রিয়া স্বাভাবিক হতে আরও কিছুদিন লাগবে। আপাতত লাইফ সাপোর্টেই রাখতে হবে তাঁকে।

বুধবার (২ অক্টোবর) দুপুরে প্রিয়াঙ্কা জামানের বড় বোন লিজা জামান গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়ে বলেছেন, ‘একটু আগে বোনকে দেখে এসেছি। দেখলাম হালকা হাতের আঙুল নাড়ছে। ডাকলাম, সাড়া দিল না বোন। চোখ খোলেনি। জানি না এভাবে আর কত দিন লাগে।’

স্কয়ার হাসপাতালের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন চিকিৎসক জানালেন, শুরুতে প্রিয়াঙ্কা জামানের রক্তে যে সংক্রমণ ছিল, তা এখন অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আছে।

কিন্তু নতুন করে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ায় বিষয়টা একটু জটিল হয়ে গেছে। হৃদ্‌যন্ত্র তুলনামূলক কম কাজ করছে। এছাড়া শরীরের অন্যান্য অঙ্গ মোটামুটি কাজ করছে।

চিকিৎসকদের কাছে সবচেয়ে বেশি চিন্তার বিষয় হচ্ছে, ইতিমধ্যে প্রিয়াঙ্কা জামানের শরীরে নিউমোনিয়া দেখা দিয়েছে। কোনো রোগী যখন নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে লাইফ সাপোর্টে থাকে, তখন যদি নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়, তাহলে বিষয়টি রোগীর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

এ ক্ষেত্রে যেকোনো বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তবে চিকিৎসকেরা আশা প্রকাশ করে বলেছেন, যেহেতু তার বয়স কম, তাই কিছুটা আশা দেখছেন তারা।

দিনের পর দিন জটিল এবং ব্যয়বহুল চিকিৎসা খরচ মেটাতে গিয়ে পরিবার হিমশিম খাচ্ছে বলে জানালেন বড় বোন লিজা জামান।

তিনি বলেন, ‘ডাক্তার বলেছেন, ওকে আরও অনেক দিন লাইফ সাপোর্টে আইসিইউতে রাখতে হবে। আমরা দিনে দিনে অসহায় হয়ে পড়ছি। প্লিজ প্রিয়াঙ্কাকে বাঁচাতে একটু এগিয়ে আসুন সবাই, আমার বোনটাকে বাঁচান।’

তিনি প্রিয়াঙ্কা জামানকে সাহায্যের বিষয়ে তার এবং বাবার দুটি নম্বর দিয়েছেন ০১৯১৭৮৯৪৭০৫ এবং ০১৭৪১২৩৫৩৩২। এই নম্বরে যোগাযোগ করা যাবে। লিজা জামান বলেন, ‘প্রিয়াঙ্কার ইমো নম্বরটা কে যেন হ্যাক করেছে।

সেখান থেকে অন্য নম্বর দিয়ে টাকা চাওয়া হচ্ছে। আমরা পরিবারের পক্ষ থেকে প্রিয়াঙ্কার ইমো নম্বরের বিষয়ে সচেতন থাকার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।’

প্রিয়াঙ্কা জামান ২০১৩ সালে বিটিভির চলচ্চিত্রের গান নিয়ে অনুষ্ঠান ‘ছায়াছন্দ’ উপস্থাপনার মধ্য দিয়ে মিডিয়ায় পা রাখেন। এরপর অনেক নাটকে অভিনয় করেছেন।

বিভিন্ন পণ্যের বিজ্ঞাপনচিত্র ও জনপ্রিয় সংগীতশিল্পীদের গানের মিউজিক ভিডিওতে মডেল হয়েছেন। আট বছর বয়সে বুলবুল ললিতকলা একাডেমিতে নাচ শেখার মাধ্যমে তিনি সংস্কৃতি অঙ্গনে যাত্রা শুরু করেন।

ঢা/তাশা

(Visited 11 times, 1 visits today)