ভেঙে ফেলতে হবে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন

  •  
  •  
  •  
  •  

ঢাকা১৮ প্রতিবেদক: মেট্রোরেল নির্মানের জন্য দেশের ঐতিহ্যবাহী কমলাপুর রেলস্টেশন অন্যত্র সরানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। এর ফলে বিদ্যমান স্টেশন ভবনটি ভাঙা পড়বে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার রেল ভবনে এ নিয়ে এক বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন- রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন ও প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি খাতবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। বৈঠকে বিষয়টির কারিগরি দিক তুলে ধরে জাপানি প্রতিষ্ঠান কাজিমা কর্পোরেশনের নেতৃত্বে একটি সাবওয়ার্কিং গ্রুপ। তবে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমতি সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে বৈঠকে জানানো হয়েছে।

জাপানের প্রতিষ্ঠানটি বলছে,  বর্তমান স্থানে কমলাপুর স্টেশনটি থাকলে নির্মাণাধীন মেগা প্রকল্প ঢাকা মেট্রোরেলের স্থাপনার আড়ালে পড়ে যাবে। আবার এই স্টেশনকে ঘিরে নেয়া মাল্টিমোডাল হাব নির্মাণ প্রকল্পও বাধাগ্রস্ত হবে।

জানা গেছে,  দেশের মেগা প্রকল্প মেট্রোরেল এবং এর সব স্টেশনই উড়ালপথে মাটি থেকে কমবেশি ১৩ মিটার ওপরে নির্মিত হবে।

নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। উত্তরা থেকে শুরু হওয়া মেট্রোরেল কমলাপুর পর্যন্ত এর শেষ স্টেশন পড়েছে।  কমলাপুর স্টেশনের ঠিক সামনে পড়ছে মেট্রোরেলের শেষ স্টেশন।

জাপানের কাজিমা কর্পোরেশনের নকশা ধরে কমলাপুর স্টেশনটিই ১৩০ মিটার উত্তরে সরিয়ে নেয়ার প্রস্তাবে রাজি হয় রেল কর্তৃপক্ষ। ফলে আগের ভবনটি ভেঙে ফেলতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর অনুমতি পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বাংলাদেশ রেলওয়ের (ডিজি) মহাপরিচালক মো. শামসুজ্জামান গণমাধ্যমকে বলেন, মেট্রোরেলের কারণে কমলাপুর স্টেশন আড়ালে পড়ে গেলে এর সৌন্দর্য আর থাকবে না। তাই সরিয়ে নেয়াই উত্তম।

এ বিষয়ে রেলের ডিজি জানান, শাহজাহানপুরসহ আশপাশের রেলের জায়গাজুড়ে বিস্তৃত কমলাপুর স্টেশন ঘিরে মাল্টিমোডাল হাব গড়ে তোলা হবে।

আগামী  ৫ বছরের মধ্যেই কাজ শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে। বাস্তবায়ন শেষ হতে সময় লাগতে পারে কমপক্ষে ১০ বছর

নভেম্বর ২৬, ২০২০ ১২:৪৩

(Visited 188 times, 2 visits today)