ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১ দিনে জোড়া খুন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১ দিনে জোড়া খুন
  •  
  •  
  •  
  •  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় একই দিনে পৃথক স্থানে দুটি খুনের ঘটনা ঘটেছে।

জেলার কসবায় পাওনা টাকা চাওয়ায় এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) জেলার কসবার চারুয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যাক্তির নাম কবির হোসেন ছোটন। নিহত কবির একই এলাকার মৃত সাহেদ আলীর ছেলে। তিনি পেশায় ডেকোরেটর ব্যবসায়ী ছিলেন।

পুলিশ এ ঘটনায় সেলিম মিয়া নামে এক অটোরিক্সা চালক ও তার স্ত্রী পারভীন বেগমকে আটক করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ডেকোরেটর ব্যবসায়ী কবির অটোরিকশা চালক সেলিমেরর কাছে টাকা পেতেন। সকালে কবির তার পাওনা টাকা চাইতে সেলিমের বাড়িতে গেলে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সেলিম ও তার স্ত্রী পারভীনসহ কয়েকজন কবিরকে মারধর করে। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

কসবা থানা পুলিশের পরিদর্শক আসাদুল ইসলাম জানান, নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ঘটনায় সেলিম ও তার স্ত্রী পারভীনকে আটক করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে জেলার আশুগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় ছাদের মিয়া (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। শুক্রবার উপজেলার তালশহর ইউনিয়নের মৈশাইর গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটে। এসময় উভয় পক্ষের আরো অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদের স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালসহ জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গুরুতর আহত দুইজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। নিহত ছাদের মিয়া মৈশাইর এলাকার সিদ্দিক মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় ইয়াসিন ও আশরাফুল নামে দুই যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, মৈশাইর গ্রামের দিদ্দিক মিয়ার বাড়ির পাশে ছাদের মিয়ার জমিতে মাছ ধরার ফাঁদ পাতে একই এলাকার ইয়াছিন মিয়া। এসময় ছাদের মিয়া গিয়ে মাছ ধরার ফাঁদ তুলে ফেলে দেয়। এরই জের ধরে ইয়াছিন মিয়া ও তার লোকজন ছাদের মিয়ার উপর হামলা চালায়।

এসময় ছাদের মিয়াকে এলোপাথারী কুপিয়ে গুরুতর জখম করে ইয়াছিন মিয়ার লোকজন। খবর পেয়ে ছাদের মিয়ার বাড়ির লোকজন উপস্থিত হলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়।

পরে গুরুতর আহত ছাদের মিয়াকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জাবেদ মাহমুদ বলেন, সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

ঢা/জেবি/আরকেএস

সেপ্টেম্বর ১১, ২০২০ ৮:১৯

(Visited 44 times, 1 visits today)