বরিশালে সন্তান হত্যায় দুই পরকীয়া প্রেমিকসহ মা যাবজ্জীবন

হাসপাতালে পুলিশ কর্মকর্তাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ
  •  
  •  
  •  
  •  

বরিশাল প্রতিনিধি :বরিশালে ১১ বছরের শিশু সন্তানকে হত্যার অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায়, মা কনা বেগমসহ তার দুই পরকীয়া প্রেমিককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১২ অক্টোবর) বরিশালের জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক কে.এম শহীদ আহম্মেদ এ রায় ঘোষণা করেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- নিহত শিশু রনির (১১) মা কনা বেগম ও তার দুই পরকীয়া প্রেমিক রুহুল আমিন নলি এবং শাহীন নলি।

রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন আসামিদের মধ্যে কনা ও রুহুল । সাজাপ্রাপ্তরা সবাই বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার কাজীরহাট থানাধীন পশ্চিম রতনপুর এলাকার বাসিন্দা। এরমধ্যে সাজাপ্রাপ্ত কনা বেগমের আপন চাচাতো ভাই শাহীন ও শাহীনের বন্ধু রুহুল আমিন ।

এদিকে মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার কাজীরচর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র ছিল নিহত রনি (১১) ।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, কনার স্বামী ও মামলার বাদী লকিতুল্লাহ দুয়ারী চট্টগ্রামের চাকতাই এলাকায় দিনমজুরের কাজ করতেন। তার অবর্তমানে কনার সঙ্গে শাহীনের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এর সূত্র ধরে রুহুল আমিনের সঙ্গেও অবৈধ সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

২০১৩ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি শাহীন ও রুহুল আমিন পশ্চিম রতনপুর এলাকায় কনার বাড়িতে যান এবং দৈহিক মিলনে লিপ্ত হন। এ সময় কনার ছেলে রনি দেখে ফেলে এবং তার বাবার কাছে বলে দেওয়ার কথা বললে, তারা তিনজন মিলে রনিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। পরে সাপের কামড়ে রনির মৃত্যু হয়েছে বলে কনা প্রচার করেন। বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যানের কছে সন্দেহ হলে তিনি পুলিশকে খবর দেন।

এ ঘটনায় নিহত রনির বাবা লতিকুল্লাহ দুয়ারী পরের দিন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় ২০১৪ সালের ২৭ মার্চ রুহুল আমীনকে গ্রেপ্তার করা হলে ,তিনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। মামলার তদন্ত শেষে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. নজরুল ইসলাম মৃধা তিনজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। এবং আদালত ২৪ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এ রায় ঘোষণা করেন।

আদালতের বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট লস্কর নুরুল হক এ রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

ঢা/জিএমএস/এসআর

অক্টোবর ১২, ২০২০ ৯:১১

(Visited 24 times, 1 visits today)