ফাইনালের দৌড়ে আজ ভারতের মুখোমুখি নিউজিল্যান্ড

  •  
  •  
  •  
  •  

নিউজ ডেস্ক : বিশ্বকাপের ফাইনালের দৌড়ে আজ টুর্ণামেন্টের অন্যতম দুই ফেভারিট ভারত ও নিউজিল্যান্ড মুখোমুখি হতে চলেছে।

প্রথম সেমিফাইনালে গ্রুপ পর্বের শীর্ষ দল ভারত চাইবে ফাইনাল নিশ্চিত করতে। অপরদিকে গ্রুপ পর্বে শেষ দল হিসেবে সেমি নিশ্চিত করা নিউজিল্যান্ডও টানা দ্বিতীয়বার ফাইনালের মঞ্চে পারফর্মের জন্য মুখিয়ে আছে।

গ্রুপ পর্বের দু’দলের একমাত্র ম্যাচটি বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়েছিল। আর মূল মঞ্চে নামার আগে কিউইদের কাছে প্রস্তুতি ম্যাচে হেরেছিল কোহলি-ধোনিদের দলটি।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে তিনটায় ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচটি। গাজী টিভি ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে।

দুই দলের অবস্থান:

আইসিসির প্রকাশিত সবশেষ র‌্যাংকিংয়ে কিউইদের থেকে এক ধাপ এগিয়ে ভারত। কিউইদের অবস্থান র‌্যাংকিংয়ের তৃতীয় স্থানে। অন্যদিকে ভারতের অবস্থান দুই নম্বরে।

ভারতের রেটিং পয়েন্ট ১২৩, কিউইদের রেটিং পয়েন্ট ১১২। তবে র‌্যাংকিং কিংবা অতীত দিয়ে বিশ্বকাপে কোনো দলকে বিচার করা বোকামি।

বিশ্বকাপের মতো বড় আসরের সেমি ফাইনালে যেকোনো কিছু ঘটে যেতে পারে। যেখানে র‌্যাংকিং কোনো মূল্য বহন করে না। মহারণের মাঠে ব্যাট-বলে পারফর্ম করেই ফাইনালের টিকিট কাটতে হবে।

সেমি ফাইনালে দু’দলই লড়বে একদম শূন্য থেকে। যেখানে নেই কোনো পয়েন্ট কিংবা নেট রান রেটের ব্যাপার। হারলেই দেশের বিমান ধরতে হবে।

আর জিতলে সুযোগ থাকছে বিশ্বকাপের সোনালি শিরোপা ছোঁয়ার আরও কাছে যাওয়ার। পরিসংখ্যান সেমি ফাইনালে কোনো অর্থ বহন করে না।

ময়দানের খেলাতে যে দলটি নিজেদের সেরা পারফরম্যান্স দেখাতে পারবে তারাই শেষ পর্যন্ত বিজয়ের হাসি হাসবে।

শেষ পর্যন্ত জমজমাট লড়াইয়ের অপেক্ষায় ক্রিকেট বিশ্ব। কার হাতে উঠবে লর্ডসের ফাইনালের টিকিট? ভারত নাকি নিউজিল্যান্ডের? মহারণে কে হবে জয়ী অপেক্ষা করতে হবে তার ফলাফল জানতে।

ভেন্যু:

বিখ্যাত ফুটবল ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের স্টেডিয়াম ওল্ড ট্রাফোর্ড থেকে পাঁচ মিনিটের দূরত্বে অবস্থিত ক্রিকেটের ঐতিহ্যের অন্যতম বাহক ওল্ড ট্রাফোর্ড ক্রিকেট গ্রাউন্ড।

ক্রিকেটের সব থেকে প্রাচীন স্টেডিয়াম গুলোর ভেতরে অন্যতম এই ওল্ড ট্রাফোর্ড স্টেডিয়ামটি নির্মিত হয়েছিল ১৮৫৭ সালে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এই স্টেডিয়ামে প্রায় ২৬ হাজার সমর্থক খেলা উপভোগ করতে পারেন।

১৮৮৪ সালে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের ম্যাচ দিয়ে ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে এই স্টেডিয়ামের। আর ১৯৭২ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইংল্যান্ডের ম্যাচ দিয়ে ওয়ানডের পথ চলা শুরু হয় স্টেডিয়ামটির।

ওল্ড ট্রাফোর্ড স্টেডিয়ামটি কেবল ক্রিকেট গ্রাউন্ড হিসেবেই সুপরিচিত নয়। প্রথম বিশ্ব যুদ্ধ এবং দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের ইতিহাস এখনো জ্বলজ্বল করছে এখানে।

১৯৪০ সালে এই স্টেডিয়ামকে সৈন্যদের ক্যাম্প হিসেবে ব্যবহার করা হত। বোমার আঘাতে স্টেডিয়ামটির কয়েকটি স্ট্যান্ড ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল, তবে পরবর্তীতে আবারো সংস্কার করা হয় স্টেডিয়ামটির।

বিশ্বকাপে হেড টু হেড মোট ম্যাচ:

৭টি, নিউজিল্যান্ড জয়ী: ৪টি। ভারত জয়ী: ৩টি। মুখোমুখি দুই দল মোট ম্যাচ: ১০৬টি, নিউজিল্যান্ড জয়ী: ৪৫টি। ভারত জয়ী: ৫৫টি। ড্র: ১টি, ম্যাচ পরিত্যক্ত: ৫টি।

দৃষ্টি থাকবে যাদের ওপর

কেন উইলিয়ামসন, ট্রেন্ট বোল্ট (নিউজিল্যান্ড), বিরাট কোহলি, জাসপ্রিত বুমরাহ (ভারত)।

বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ড স্কোয়াড

কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), মার্টিন গাপটিল, হেনরি নিকোলস, রস টেইলর, টম লাথাম (উইকেটরক্ষক), কলিন মুনরো, টম ব্লান্ডেল, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, মিচেল স্যান্টনার, জিমি নিশাম, ইশ সোধি, ম্যাট হেনরি, লুকি ফার্গুসন, টিম সাউদি ও ট্রেন্ট বোল্ট।

বিশ্বকাপে ভারত স্কোয়াড

বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা (সহ-অধিনায়ক), রিশব পান্ত, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটরক্ষক), দীনেশ কার্তিক, লোকেশ রাহুল, কেদার যাদব, হার্দিক পাণ্ডিয়া, জাসপ্রিত বুমরাহ, ভুবনেশ্বর কুমার, মোহাম্মদ শামি, রবীন্দ্র জাদেজা, কুলদীপ যাদব, যুভেন্দ্র চাহাল, মায়াঙ্ক আগরওয়াল।

ঢা/এমএম

জুলাই ৯, ২০১৯ ১০:৩২

(Visited 6 times, 1 visits today)