দেহরক্ষীসহ ফের রিমান্ডে ইরফান

  •  
  •  
  •  
  •  

ঢাকা১৮ প্রতিবেদক: নৌ কর্মকর্তাকে হত্যাচেষ্টার মামলায় এমপি হাজী সেলিমের ছেলে ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের সাময়িক বহিষ্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম ও তার দেহরক্ষী জাহিদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফের ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রোববার বেলা সাড়ে ৩টায় ঢাকা মহানগর হাকিম জিয়াউর রহমানের আদালত এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে তিন দিনের রিমান্ড শেষে ইরফান ও তার দেহরক্ষী জাহিদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফের ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করে ডিবি পুলিশ। এ সময় রিমান্ডের বিরোধিতা করে জামিনের আবেদন জনায় ইরফানের আইনজীবী।

অপরদিকে এ মামলায় আসামিদের দেয়া তথ্য যাচাই করতে ফের তাদের রিমান্ডে নেয়ার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করবেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত তাদের প্রত্যেককে ২ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ২৮ অক্টোবর ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূর তাদের প্রত্যেককে ৩দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত ২৬ অক্টোবর ইরফান সেলিম ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টায় ধানমন্ডি থানায় মামলা করেন নৌবাহিনীর কর্মকর্তা ওয়াসিফ আহমদ খান। এ মামলার আসামিরা হলেন, ইরফান সেলিম, তার বডিগার্ড মোহাম্মদ জাহিদ, হাজী সেলিমের মদিনা গ্রুপের প্রটোকল অফিসার এবি সিদ্দিক দীপু এবং গাড়িচালক মিজানুর রহমানসহ অজ্ঞাত আরো কয়েক জন। এ মামলায় দীপু তিন দিন ও মিজানুর একদিনের রিমান্ডে রয়েছেন।

গত রোববার (২৫ অক্টোবর) সন্ধ্যার পর রাজধানীর কলাবাগান এলাকায় হাজী সেলিমের গাড়ি থেকে নেমে নৌ বাহিনীর একজন কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহমেদ খানকে মারধরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোমবার ধানমন্ডি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন ওয়াসিফ। মামলায় হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিম, প্রটোকল অফিসার এ বি সিদ্দিক দিপু, মোহাম্মদ জাহিদ ও মিজানুর রহমানের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো তিনজনকে আসামি করা হয়।

নভেম্বর ১, ২০২০ ৬:১০

(Visited 65 times, 1 visits today)