দুদক পরিচালকের মৃত্যু, স্ত্রী-সন্তান আইসোলেশনে

নিউজ ডেস্ক: কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক জালাল সাইফুর রহমান মারা গেছেন। সোমবার ( ৬ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৭টায় তিনি মারা যান। দুদকের দায়িত্বশীল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। দুদকের পরিচালক মারা যাওয়ার পর তার স্ত্রী ও ছেলেকে আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ শোক প্রকাশ করেছেন।

দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য বলেন, ‘আজ সকালে জালাল সাইফুর রহমান মারা গেছেন।’

এ বিষয়ে কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা আলীমুজ্জামান বলেন, তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছিল। আজ সকালে মারা গেছেন তিনি।

দুদকের ওই সূত্র জানায়, ২২ মার্চ প্রথম দফায় জ্বর আসে জালাল সাইফুরের। তখন তাপমাত্রা কম ছিল। ওই সময় জ্বর সেরে যায়। দ্বিতীয় দফায় ২৪-২৫ তারিখ তার জ্বর আসে। তখনও তাপমাত্র কম ছিল। জ্বরের সঙ্গে হালকা কাশিও ছিল। দু’দিন পর তিনি সুস্থ হয়েছে যান। তবে জ্বর নিয়ে তিনি অফিস করেন। তৃতীয় দফায় ৩০ তারিখ তার পুনরায় জ্বর আসে। এবার তাপমাত্রা বেশি ছিল। সেদিনই তিনি আইইডিসিআরকে জানান। পরে আইইডিসিআর তার নমুনা সংগ্রহ করে এবং রাতেই তাকে করোনা পজিটিভ বলে জানানো হয়। এরপর জালাল সাইফুরকে কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছিল। পরে সোমবার সকালে তিনি মারা যান।

এদিকে, ২৪-২৫ মার্চ অফিস করার সময় জালাল সাইফুরের সংস্পর্শে আসা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

ঢা/এফএইচপি

(Visited 3 times, 1 visits today)