দলের সাফল্যে হাথুরুকে চাইলেন আশরাফুল

হাথুরু ও আশরাফুল
  •  
  •  
  •  
  •  

 স্পোর্টস ডেস্ক: শ্রীলঙ্কান চন্ডিকা হাথুরুসিংহে চলে যাওয়ার পর সেই টাইগারদের দেখা মিলেনি ক্রিকেট মাঠে। কারণ হাথুরুর রেকর্ডেই কথা বলছে তার পক্ষে।

এবার স্বীকার করেছেন লিটল মাস্টার আশরাফুল। বর্তমান টাইগার কোচ  ডমিঙ্গোর প্রোপাইল সমৃদ্ধ হলেও চণ্ডিকা হাথুরুসিংহয়ের ধারে কাছেও নেই এই প্রোটিয়া কোচ।

চন্ডিকার সময়ে ওয়ানডেতে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছিল টাইগাররা। হাথুরুসিংহের মতো একজনকেই টাইগার দলে কোচ দরকার বলে মনে করছেন মোহাম্মদ আশরাফুল।

বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়কের মতে, ডমিঙ্গো নয়, হাথুরুসিংহের মতো কড়া হেড মাস্টার দরকার টাইগার দলে।

সোমবার (৫ এপ্রিল) এই কথা জানিয়েছে আশরাফুল একটি অনলাইন পোর্টালকে।

আশরাফুল বলেন, ‘আপনি যদি দেখেন হয়তোবা খেলোয়াড়েরা যারা খেলেছে, আমি কখনও শুনি নাই হাথুরুসিংহকে কৃতিত্ব দিতে। আমি ব্যক্তিগতভাবে বাইরে থেকে মনে হয়েছে যে পুরো কৃতিত্বটা হাথুরুসিংহই পাবে। কারণ ওর যেভাবে পরিকল্পনা করেছে, ডমিনেট করেছে একজন খেলোয়াড়ের সঙ্গে। ওই সময় কিন্তু তামিম, সাকিব, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ ওদের থেকে সেরা পারফরম্যান্সটা আমরা পেয়েছি। তরুণরাও পারফরম্যান্স করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ওই সময়টায় যদি দেখেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে সেরা সময় এবং প্রত্যেকটা খেলোয়াড়ের স্ট্রাইট রেট, গড় সবকিছু কিন্তু ওর অধীনে হয়েছে। কিন্তু কোনো ক্রিকেটারকে দেখিনি হাথুরুসিংহকে কৃতিত্ব দিতে। সে যেটা চেয়েছে সেটাই করেছে। এই কারণে আমাদের দেশে আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি এভাবেই চালাতে হবে। এখন দেশ যেভাবে চলছে এখন ক্রিকেটটাও এভাবে চালাইতে হবে। একজনই শাসন করবে, ওইভাবেই চলবে। ১৪জন যদি বলে ১৪ টা কথা ওইভাবে ফলাফল পাওয়া যাবে না।’

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের হোয়াইটওয়াশ হওয়ার আগে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজ হেরেছে বাংলাদেশ। যার জন্য অনেকেই টেস্টের প্রস্তুতি ছাড়াই খেলতে নামাকে দায়ী করেছেন। তবে বোর্ড থেকে দুটি চারদিনের ম্যাচ খেলার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল বলে নাইমুর রহমান দুর্জয় ও আকরাম খানরা জানিয়েছিল।

কিন্তু ক্রিকেটারদের আপত্তি থাকায় তাঁদের ছুটি দের ডমিঙ্গো। বিষয়টি একেবারে ভালো লাগেনি আশরাফুলের। তিনি মনে করেন, ডমিঙ্গো জায়গা এখানে হাথুরু থাকলে ক্রিকেটারদের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতেই হতো। কেউ প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে আপত্তি জানালে তাঁকে টেস্ট ম্যাচে নেয়া হতো না বলেও মনে করেন তিনি।

আশরাফুল বলেন, ‘সাম্প্রতিক সময়ে দুর্জয় ভাই বললেন, উনারা চেয়েছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে খেলার আগে দুইটা চারদিনের ম্যাচ খেলবে। কিন্তু ক্রিকেটাররা বললো তারা ছুটি চায়। তারপর কি হলো, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আমরা দুইটা ম্যাচই হেরে গেলাম। এটার ব্যর্থতা কার? ব্যর্থতা তো ক্রিকেট বোর্ডের হলো।

তিনি আরও বলেন, খেলোয়াড়েরা চাইলো আর আপনি ছুটি দিয়ে দিলেন তাইলে তো হলো না। তো হাথুরুসিংহ যদি থাকতো তাহলে এটা এমন হতো না। ও বলতো যদি তুমি টেস্ট ম্যাচ খেলতে চাও তাহলে খেলতেই হবে তোমার। আমি মনে করি যে আমাদের ওইরকম হেড মাস্টার, কোচই প্রয়োজন।’

ঢা/মমি

এপ্রিল ৫, ২০২১ ৬:০১

(Visited 13 times, 1 visits today)