জেনে নিন কটন বাড ব্যবহারে ক্ষতিকর দিক

  •  
  •  
  •  
  •  

লাইফষ্টাইল ডেস্ক: কান পরিষ্কার করতে কটন বাড ব্যবহার করেন বেশিরভাগ মানুষ। নরম এই বাডগুলো আমাদের কানে সাময়িক আরাম দিতে পারে, কিন্তু দীর্ঘমেয়াদী ক্ষতির সম্ভাবনাই প্রবল! ২০১৭ সালে একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে, কানের সমস্যার ৭৩ শতাংশের পিছনে রয়েছে কটন বাড। বাচ্চাদের কানের সমস্যার বেশিরভাগই হয় কটন বাড দিয়ে কান পরিষ্কারের ফলে। এদিকে চিকিৎসকেরা বলছেন, কান পরিষ্কার করার দরকার হয় না, নিজে থেকেই পরিষ্কার হয়ে যায়। কানের ভিতরের তরুণাস্থিগুলো এই বাডের আঘাতে নষ্ট হয়। ফলে শ্রবণশক্তি দুর্বল হওয়ার সঙ্গে পর্দার ক্ষতি হয়। অকালে চলে যেতে পারে শ্রবণক্ষমতাও।

কটন বাড ব্যবহারে ক্ষতি যে ধরনের ক্ষতি হয়:

১/চিকিৎসকেরা বলছেন, কটন বাড ব্যবহার করলে কানের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। কানে যন্ত্রণা, কান ফুলে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা দেয়। এমনকী শোনার ক্ষমতাও কমে যেতে পারে।

২/ কটন বাড ব্যবহারের ফলে কানের ভিতরের ময়লা আরও বেশি ভিতরে ঢুকে যায়। কানের পর্দার আরও কাছে পৌঁছে যায় ময়লা! কানের মধ্যে থেকে ময়লা বেরোনোর পরিবর্তে ভিতরেই থেকে যায় বেশি।

৩/ কটন বাড প্রতিনিয়ত ব্যবহার করলে কানের গহ্বরে ধাক্কা লাগে। বারবার ধাক্কা লেগে রক্ত বের হতে পারে।

৪/ কানের মধ্যে অনেক সূক্ষ্ম শিরা ও অস্থি থাকে। কটন বাডের আঘাতে সেগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। ফলে শোনার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলতে পারেন কেউ।

৫/ অনেক সময় বাডের তুলো কানের ভিতরে থেকে যায়। সেই তুলো থেকে কানে ইনফেকশন হতে পারে, শুনতে সমস্যা হতে পারে আপনার।

৬/কটন বাড ব্যবহার করলে কানে ব্যাকটেরিয়া ঢুকতে পারে, ধীরে ধীরে ব্যাকটেরিয়া থেকে ইনফেকশন দেখা দেবে কানে।

ঢা/এসআর

ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২১ ৬:১০

(Visited 47 times, 1 visits today)