জগন্নাথপুর উপজেলার নাদামপুর গ্রামে বন্দুক যুদ্ধে গুলিবিদ্ধ ৮

  •  
  •  
  •  
  •  

সুনামগন্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের নাদামপুর গ্রামের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিরাজ মিয়ার লোকজন ও একই গ্রামের ইউ/পি সদস্য ইকবাল হোসেন সাজাদ মেম্বার দুই পক্ষের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের সংঘর্ষের ঘটনায় কমপক্ষে ১৬ জন আহত হন। এদেরমধ্যে নারীসহ ৮ জনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় কলকলিয়া ইউ/পি সদস্যসহ ১০/১২ জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানান থানা পুলিশ কর্মকর্তা। এই ঘটনায় একটি লাইসেন্সকৃত বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, নাদামপুর গ্রামের যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিরাজ মিয়া গংদের সাথে একই গ্রামের বাসিন্দা ইউ/পি সদস্য সাজাদ মেম্বারগংদের মধ্যে গ্রামের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে মামলা মোকদ্দমা ও বিরোধ চলে আসছিল। গ্রামের আসাদ মিয়া মারা যাওয়ায় চল্লিশদিনের শিরনী নিয়ে যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিরাজ মিয়াগংদের সাথে ইউ/পি সদস্য ইকবাল হোসেন সাজাদ মেম্বারগংদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়।

এরই জের ধরে বুধবার দুপুরে ইকবাল হোসেন সাজাদগংদের লোকজনের হাতে যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিরাজ মিয়া অপদস্থ হন। পরে প্রবাসী সিরাজ মিয়ার পক্ষের লোকজন বন্দুক দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে ১০ রাউন্ড গুলি চুরলে কমপক্ষে ১৬ জন আহত হন। এদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ ৮ জনকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়।

গুলিবিদ্ধ আহতরা হলেন, ফটিক মিয়া(৩৫), বিবিনুর বেগম(৫০), ফাতেমা বেগম(১৪), আব্দুল আলীম(৩০) হাফিজুর রহমান (২২), মিটু মিয়া(২২), তাসলিমা(১৭), রুমেজ মিয়া(৩২)।

খবর পেয়ে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রবাসী সিরাজ মিয়ার নামের একটি লাইসেন্সকৃত একটি বন্দুক উদ্বারসহ ১২ জনকে আটক করে।

জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক শাহ আলম সিদ্দিকী জানান, গুলিবিদ্ধ ৮ জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদেরকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যান্য আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য জগন্নাথপুর স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

জগন্নাথপুর থানা অফিসার ইনর্চাজ ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় একটি বন্দুকসহ উভয় পক্ষের ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ঢা/এএইচ/আইএইচই

ডিসেম্বর ১৬, ২০২০ ৮:৫৯

(Visited 60 times, 1 visits today)