কেউ পতাকা বহন করে কেউ পতাকা ধারণ করে

  •  
  •  
  •  
  •  

জালাল উদ্দিন রুমি : কেউ বুঝে কেউ না বুঝে, কেউ ধারণ করে কেউ নিদারুণের নির্মমতায়, জীবনের প্রয়োজনে, লাল সবুজের পতাকা বাংলার এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তরে বহন করছেন।

রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপুর্ণ দিবস মহান বিজয় দিবসের মর্যাদাপুর্ণ আনন্দ উল্লাস পালনে একটি গুরুত্বপুর্ণ অংশ লাল সবুজের পতাকা।

যেটি আমাদের অস্তিত্বের,অহংকারের।

রহিম উদ্দিন (ছদ্মনাম) আমাদের বীর সেনানীদের দেয়া,বীরাঙ্গনাদের সম্ভ্রম,শহীদের রক্তের দান,বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগের বিনিময়ে দাম দিয়ে কেনা আমাদের জাতীয় পতাকা বহন করছেন এই ব্যাক্তি।

হাটে বাজারে,শিক্ষা প্রতিষ্টানে,মসজিদে মন্দিরে পতাকাসমুহ বহন করে যাচ্ছেন।

যাদের প্রয়োজন তারা খুব সহজেই পতাকাটি সংগ্রহ করছেন।

একই সাথে বহনকারী তার প্রয়োজনীয় অর্থের প্রাপ্তিতে আনন্দের সাথেই কর্মটি সম্পাদন করছেন।

তাকে প্রশ্ন করি এতকাজ থাকতে এই কাজটি কেন করছেন?

সহজ সরল উত্তর সব কাজে অর্থ খুঁজলে হয়না, কখনো কখনো তা নিজের আনন্দের জন্য, দায়বদ্ধতা ও ভাললাগা, ভালবাসায় দায়িত্ব পালন করি।

মুক্তিযোদ্ধ করতে পারিনি। বঙ্গবন্ধুর আহবান শুনেছি। কিন্তুু সেদিন খুব ছোট ছিলাম।

আজ স্বাধীন দেশের স্বাধীন নাগরিক। তাই কম করে হলেও একটি মাস, কিছুটা সময় বঙ্গুবন্ধুর প্রতি, মুক্তিযোদ্ধার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতেই আমার এ ক্ষুদ্র প্রয়াস।

স্যালুট পতাকাবাহি নওজোয়ান। স্যালুট।

ঢা/এমএম

ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯ ১০:৩৬

(Visited 36 times, 1 visits today)