করোনা চলে গেলেও থেকে যাবে আজীবন

  •  
  •  
  •  
  •  

ফিচার ডেস্ক : মহামারি করোনাভাইরাস মানুষের মাঝে ব্যাপক পরিবর্তন এনেছে। বদলে দিয়েছে প্রকৃতিও। জীবন বাঁচাতে মানুষ অনেক অসাধ্যকেও সাধন করেছে। মেনে চলছে অনেক নিয়ম-কানুন। তবে এ নিয়মগুলো করোনা চলে গেলেও আজীবন থেকে যাবে বা মেনে চলা উচিত। কারণ এতে আমাদের শরীর-স্বাস্থ্য ভালো থাকবে।

বিশেষজ্ঞেরা বলছেন, লকডাউন দিয়ে করোনাভাইরাসকে পুরোপুরি দমন করা সম্ভব নয়। হয়তো সংক্রমণের গতি কিছুটা রোধ করা যায়। ফলে সেই সুযোগে রোগ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে আমাদের প্রস্তুতির জন্য বাড়তি কিছু সময় পাওয়া যায়।

তাই করোনা বা লকডাউন থাকুক বা না থাকুক, নিরাপদ থাকতে চাইলে আমাদের সাবধান হতে হবে। মনে রাখবেন, সংক্রমণ আপাতত কমলেও পরে আবার বাড়তেও পারে।

জেনে নিন, করোনা চলে গেলেও কী কী নিয়ম সারাজীবনই মেনে চলতে হবে-

বাড়িতে থাকুন: করোনাভাইরাস দুর্বল হয়ে গেলে সরকারিভাবে হয়তো লকডাউন শেষ হয়ে যাবে। তারপরও যতটা সম্ভব বাড়িতে থাকার চেষ্টা করবেন। এমনকি ভবিষ্যতেও প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে থাকার চেষ্টা করবেন না।

হাত ধুয়া: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সব সময়ই হাত ধোয়ার ওপর গুরুত্ব দিয়েছে। নিজের শরীর সুস্থ রাখতে হাত ধোয়ার বিকল্প নেই। তাই করোনা চলে গেলেই হাত ধুতে ভুলে যাবেন না। নিয়মিত সময়মতো হাত ধোবেন।

স্যানিটাইজার রাখুন: হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ড রাব, হ্যান্ড ওয়াশ ইত্যাদি ঘরে রাখতে পারেন। সেটি সম্ভব না হলে সাবান-পানি রাখুন। এটি শুধু করোনাভাইরাস মোকাবেলার জন্য নয়। সারজীবনই এগুলো ব্যবহার করা উচিত।

গ্লাভস ব্যবহার: করোনাভাইরাসের ভয়ে এখন সবাই গ্লাভস ব্যবহার করছেন। অনেক পেশায় সব সময়ই গ্লাভস ব্যবহার করতে হয়। তবুও স্বাভাবিক জীবনযাপনের জন্য বিশেষ প্রয়োজনে আপনিও গ্লাভস ব্যবহার করবেন। এতে নিজেও নিরাপদ থাকবেন। ঘরের মানুষকেও নিরাপদ রাখবেন।

নিয়মিত মাস্ক পরুন: আগে হয়তো ধুলাবালি আর দুর্গন্ধ এড়াতে মাস্ক ব্যবহার করতেন। করোনা আসার পর ভাইরাস রোধ করতে মাস্কের ব্যবহার বাড়িয়েছেন। আশা করি করোনা চলে গেলেও মাস্ক ব্যবহারের এ অভ্যাস অব্যাহত রাখবেন। তাতে শুধু করোনা নয়, বাতাসের ধুলা, ময়লা, দূষণের হাত থেকেও রক্ষা পাবেন।

পিপিই রাখুন: বিশেষ বিশেষ কাজে এখন থেকে অবশ্যই পিপিই ব্যবহার করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে চিকিৎসক, পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মী, পরিচ্ছন্নতা কর্মীসহ বেশ কিছু পেশার মানুষ নিয়মিত পিপিই ব্যবহার করতে পারেন।

ভিড় এড়িয়ে চলুন: আমাদের দেশে মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তরা চাইলেও ভিড় এড়িয়ে চলতে পারেন না। তবুও আপাতত যেকোনো জনবহুল এলাকা এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। প্রয়োজনে ভবিষ্যতেও অভ্যাসটি বজায় রাখার চেষ্টা করতে হবে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন: সর্দি-কাশি হলে রুমাল বা টিস্যু সঙ্গে রাখুন। হাঁচি-কাশির সময় মুখ, নাক ঢেকে রাখবেন। একাধিক রুমাল সঙ্গে রাখবেন। যাতে প্রয়োজনে বদলে নিতে পারেন। রুমাল ব্যবহারের পর প্রতিদিন ভালোভাবে সাবান-পানি দিয়ে ধুয়ে রোদে শুকিয়ে নেবেন। টিস্যু ব্যবহার করলে যেখানে-সেখানে ফেলবেন না।

বিনোদন এড়িয়ে চলুন: আগামী বেশ কয়েক মাস পার্টি, অনুষ্ঠান, সিনেমা হল, থিয়েটার, দাওয়াত-এসব থেকে দূরে থাকতে হবে। পারলে ভবিষ্যতেও কমিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবেন।

ভ্রমণ বন্ধ রাখুন: লকডাউন শেষ হলে কোথাও ভ্রমণ করতে ছুটবেন না। কোনো কোনো অঞ্চলে ভাইরাসের প্রকোপ থাকতে পারে। তাই আপাতত আরও কয়েক মাস নিরাপদ থাকতে নিজের বাড়ি বা নির্দিষ্ট এলাকায়ই থাকুন।

ঢা/জেআই

(Visited 8 times, 1 visits today)