একবার রাশিফলে চোখ বুলিয়ে নিতে পারেন

  •  
  •  
  •  
  •  

লাইফস্টাইল ডেস্ক: জ্যোতিষ শাস্ত্র বা রাশিফল যাই বলুক, আপনার ভাগ্য নির্ধারণের চাবিকাঠি কিন্তু আপনার হাতেই।

তাই ভাগ্যের ওপর অযথা নির্ভর না করে নিজের ওপর ভরসা করুন।

তবে দিন শুরুর আগে একবার রাশিফলে চোখ বুলিয়ে নিতে পারেন আপনিও।

তাহলে কোথায় কখন সংযত হতে হবে তারও একটা আনুমানিক হিসাব পাবেন।

তবে অবশ্যই মাথায় রাখুন কোনও কিছুই কিন্তু আপনার ভাগ্যকে আমূল বদলে দিতে পারে না। তাই সেই বুঝেই পা ফেলুন।

আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি, শুক্রবার। চলুন জেনে নেয়া যাক আজ আপনার রাশি কি বলছে।

মেষ:

আপনার কোনও কিছু বিষয়ে উৎসাহ থাকলে সেই দিকেই লক্ষ্য স্থির রাখুন।

কারণ জ্যোতিবিজ্ঞানীরা বলছে আপনি লক্ষ্যে পৌছাতে সফল হবেন, যার বৈধতা আজকেই শেষ। তাই চেষ্টা চালান।

তবে আপনার সহকর্মীরা কিন্তু মোটে ভালো না , তারা কিন্তু আপনাকে বোকা বানাতে পারে। তাই তক্কে তক্কে থাকবেন।

বৃষ:

অশুভ কোনও সঙ্কেত তাড়াতাড়ি বোঝার চেষ্টা করুন। অন্যের কথায় অর্থ খরচ হতে পারে।

সন্তানের দিক থেকে কোনও ভাল খবর আসতে পারে। অন্যান্য গ্রহের সঙ্গে চন্দ্রের সম্পর্ক ভাল না থাকায় নানা বিভ্রান্তি দেখা দিতে পারে।

এরমধ্যে কোনও বিশেষ কাজ করার থাকলে তা আপাতত স্থগিত রাখুন।

মিথুন:

সকালের দিকে স্ত্রী বিবাদ হতে পারে। আজ উচ্চবিদ্যা হোক বা নিম্নবিদ্যা, কোনও জায়গাতেই ফল ভাল নয়।

ব্যবসায় বা অন্য কোনও কাজে বাড়তি বিনিয়োগ না করাই শ্রেয়। মাথা গরম করার ফলে হাতে আসা কাজ ভেস্তে যাবে।

তবে আপনার কাজে বা আচরণে আপনার মনের মানুষ খুশি হবে।

কর্কট:

দীর্ঘকাল ধরে যে আর্থিক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন আপনি, আচমকা একটা সমাধান পেতে পারেন আজ।

সারা দিনে যা কাজ করবেন, নিজেই সে সবে নেতৃত্ব দবেন বলে মনে হচ্ছে।

প্রিয়জনের খারাপ কাজের জন্য বাড়িতে বিবাদ। ব্যবসায় কোনও ক্ষতি থেকে সাবধান থাকুন।

আজ নিজের সুবিধার জন্য কোনও কাজ করতে হবে। আর্থিক দিকে দিনটি ভাল হবে। সকলে মিলে দূরে ভ্রমণের সুযোগ।

সিংহ:

সামনের দুটো দিনে আপনার জন্য প্রচুর সুযোগ আসতে চলেছে। ধন উপার্জন হবে অল্প।

সঞ্চয়ের পরিমাণ কম হলেও আয়-ব্যয়ের সমতা বজায় থাকবে বলে মনে হয়।

আয়ের পরিমাণ কম হলেও ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়তে হবে না।

যাঁরা চাকরির সঙ্গে যুক্ত আছেন তাঁদের আর্থিক চিন্তায় মাঝে মাঝে ব্যাকুল হতে হবে। ছোট ব্যবসায়ীগণও অনেক সমস্যার সন্মুখীন হবেন, তবে তা সাময়িক।

কন্যা:

কেউ আপনার থেকে আর্থিক সুবিধে নিতে পারবে না।

জীবনে কিছু অর্জন করতে চাইলে নিজের আবেগ, সেন্টিমেন্টকে খুব গুরুত্ব দেবেন না। দু’দিক মেলাতেই পারছেন না।

কিন্তু এখনও আপনার কাছের মানুষের কাছে একইরকম প্রিয় আছেন আপনি।

খুব চেষ্টা করেও এড়িয়ে যাচ্ছেন যা, তার সামনাসামনি হতেই হবে। শারীরিক এবং আর্থিক খুঁটিনাটির দিকে নজর দিন।

তুলা:

উদরপীড়া, গুহ্যরোগ, শ্লেষ্মাঘটিত ব্যাধি ও নেত্ররোগের জন্য মাঝেমধ্যে কিছু কষ্টভোগ করতে হতে পারে।

তবে কোনও গুরুতর রোগ বা শয্যাশায়ী হয়ে থাকতে হবে না বলে মনে হয়।

পিতা-মাতার শারীরিক অবস্থা ভাল না-ও থাকতে পারে। তাঁদের স্বাস্থ্যভঙ্গ ও আচরণ বৈষম্যে মন ভারাক্রান্ত থাকবে, ভ্রাতা-ভগিনীদের আচরণে দুঃখিত ও চিন্তিত হওয়া অমূলক নয়।

বৃশ্চিক:

এ বছর বিচ্ছেদ পর্যন্ত হতে পারে। সম্পত্তিঘটিত গোলযোগ মামলা-মোকদ্দমাতেও পরিণত হতে পারে। এ বছর পুত্রসন্তান লাভের আশা করা যেতেই পারে।

বন্ধুদের মধ্যে বেশির ভাগই আপনার স্বপক্ষে থাকবে। আত্মীয়বর্গের সঙ্গে সত্তার সম্পর্ক স্থায়ী হবে না।

পত্নীর আগের কোনও রোগ নিরাময়ের আশায় কিছু অর্থব্যয় অসম্ভব নয়। তবে নতুন করে কোনও বড় রোগে ভোগার আশঙ্কা নেই।

ধনু:

চাঁদ এখন আপনার সহায়। উন্নতি সুযোগ আজকে আপনার দোরগড়ায়। অনেক দিনে কাল ঘাম এক করা কাজের দাম পেতে পারেন আজকে।

তবে দেখবেন আজ কিন্ত অকারণে ক্ষতিপূরণ দিতে হতে পারে, তাই টিকিট কেটে ট্রেনে উঠুন বা হেলমেট পড়ে আইন মেনে গাড়ি চালান।

মকর:

এই বছর সম্পর্কে একটু খরচ বাড়তে পারে। বাইরের কোনও সম্পর্ক নিয়ে বিবাদ বৃদ্ধি। স্ত্রীর সঙ্গে কোনও অন্য ব্যক্তির জন্য বিবাদ।

পরিবারে সম্পর্ক ঠিক থাকবে না। কেউ আপনাকে সাহায্য করলে তা আখেরে আপনার জন্য ভালোই হবে। বাড়তি কোনও খরচের জন্য সঞ্চয় কম হবে।

কুম্ভ:

অপ্রত্যাশিত কোনও ঘটনা আপনাকে পরিকল্পনা পরিবর্তন করতে বা এমনকি আপনার জীবনের সমগ্র দিক পরিবর্তন করতে বাধ্য করতে পারে তবে তা ইতিবাচকই হবে।

এবার আপনিই ঠিক করবেন যে আপনি অন্য কারও ওপর আপনার ভাগ্যকে ছেড়ে দেবেন, নাকি নিজের জীবনের সিদ্ধান্ত নিজেই নেবেন।

মীন:

সাংসারিক ঝুট ঝামেলা এড়িয়ে চলুন। করুণা আদায়ের চেষ্টা না করে সমস্যার মূল থেকে সমাধানের চেষ্টা করলে তা কাজে দেবে।

ব্যক্তিত্বের সংঘাত হবেই। তবে ইগোকে খুব বেশি বাড়তে দেবেন না। তাতে ব্যক্তিগত এবং পেশাগত, দুই জীবনেই ঝামেলা বাড়তে পারে।

আপনার যা কিছু সীমাবদ্ধতা, স্বীকার করে নিতে চাইছেন না, তাই কেউ পরামর্শ দিলে বিরক্ত হচ্ছেন।

ঢা/তাশা

(Visited 1 times, 1 visits today)