এএসপি খায়রুলের হাতে সিনহা হত্যা মামলার তদন্তভার

মেজর সিনহা হত্যা: ফের চার দিনের রিমান্ডে ৩ সাক্ষী
  •  
  •  
  •  
  •  

ঢাকা১৮ ডেস্ক: সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার নতুন তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে মোহাম্মদ খায়রুল ইসলামকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি বাংলাদেশ পুলিশের একজন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার এবং বর্তমানে র‌্যাবে কর্মরত রয়েছেন।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

আশিক বিল্লাহ জানান, ৩১ জুলাই রাতে পুলিশের গুলিতে নিহত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খানের বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌসের করা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হিসাবে নতুন নিয়োগ পাওয়া সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ খায়রুল ইসলাম মেধাবী, দূরদর্শী ও বিচক্ষণ কর্মকর্তা। অতীতে বেশকিছু চাঞ্চল্যকর মামলার আইও হিসাবে তিনি সুনাম ও সফলতার সঙ্গে পেশাদারিত্বের পরিচয় দিয়েছেন।

তিনি বলেন, রিমান্ড মঞ্জুর হওয়া আসামি বরখাস্ত হওয়া ৪ পুলিশ সদস্য কনস্টেবল সাফানুর করিম, কনস্টেবল কামাল হোসেন, কনস্টেবল আবদুল্লাহ আল মামুন ও এএসআই লিটন মিয়া এবং সন্দেহজনক ৩ আসামী টেকনাফের বাহারছরার মারিশবনিয়া এলাকার নাজিম উদ্দিন নাজুর ছেলে নুরুল আমিন, নজির আহমদের ছেলে নিজাম উদ্দিন ও জালাল আহমদের ছেলে মোহাম্মদ আয়াছকে নতুন আইও খায়রুল ইসলামের নেতৃত্বে শুক্রবার (১৪ আগস্ট) সকালে জেলা কারাগার থেকে রিমান্ডের জন্য হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে র‌্যাব-১৫ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, কিছু সমস্যার কারণে সিনহা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন করা হয়েছে। ধারাবাহিকভাবে অন্য আসামিদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

উল্লেখ্য, এর আগে র‌্যাব-১৫ এর সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) জামিল আহমদকে এই মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়েছিল। তার পরিবর্তে নতুন তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে এসেছেন খায়রুল ইসলাম।

ঢা/আরকেএস

আগস্ট ১৪, ২০২০ ৫:৫০

(Visited 67 times, 1 visits today)