উপহার – “শান্তি”

Photo source: Pinterest

আলী আহসান প্রিন্সঃ আমাদের প্রত্যেকেই একটি আত্মার অধিকারী মানব। যে মহাশক্তি আমাদেরকে সৃষ্টি করেছেন তিনি আমাদের মধ্যে তাঁর আত্মাকে দিয়েছেন।

He breathed into Adam after He prepared him as human; তাঁর আত্মার সাথে সাথে আমাদের মধ্যে এসেছে কিছু ঐশ্বরিক উপাদান যাকে আমরা মানব বৈশিষ্ট্য বলে জানি।

মানুষ হিসাবে আমাদের স্বার্থকতা তখনই আসে যখন আমরা সেই উপাদানগুলোকে সঠিকভাবে কাজে লাগিয়ে সেই মহাশক্তির জন্য কিছু উপহার তৈরি করতে পারি। আরবি শব্দ মুসলিম মানে Who submits to One God, এক আল্লাহর কাছে নিজেকে সমর্পন করে যে।

মহাশক্তির কাছে প্রাপ্ত উপাদানগুলো দিয়ে আমরা যে উপহার তাঁর জন্য বানিয়ে দিতে পারি সেটাই হচ্ছে সেই একক মহাশক্তির কাছে সমর্পন, অর্থাৎ মুসলিম হওয়া (being a Submitter to the ONE is being Muslim), এটা আমার কথা নয় বরং সেই মহাশক্তির দিক নির্দেশনার সকল গ্রন্থে এই একই সংজ্ঞা আছে।

উপাদানগুলো অদৃশ্য, কিন্তু সেগুলো কাজে লাগিয়ে আমরা যে উপহার তৈরি করি তা দৃশ্যমান। আত্মার ভেতর থাকে নম্রতা, সহমর্মিতা, ক্ষমা, প্রেম, ভালোবাসা, সুব্যবহার, সুচিন্তা, সুপরামর্শ, অন্যকে সাহায্য করার প্রবণতা, ইচ্ছা, জ্ঞান ও জ্ঞানের তৃষ্ণা, এমন হাজারো সব বৈশিষ্ট্য যা মানুষের মধ্যে তিনি দিয়েছেন।

নম্রতা, সহমর্মিতা দিয়ে কারও সাথে আচরণ করলে মহাশক্তির জন্য একটা উপহার তৈরি হয়। এভাবেই তাঁকে প্রতিনিয়ত তাঁরই দেয়া উপাদান দিয়ে আমরা উপহারের ডালি সাজিয়ে দিতে পারি।

তাহলে প্রশ্ন আসে কেন আমরা তা পারি না? আমাদের মধ্যে যেসব রাগ, হিংসা, প্রতিহিংসা, জেদ, মন্দ ধারণা, জিঘাংসা, ইত্যাকার সব খারাপ উপাদান আছে এসবের কারণেই আমরা সেই উপাদান তৈরি করতে পারি না।

কিন্তু এসব খারাপ উপাদানের উৎস কী? ধারণা করা যায় দুটো কারণে হতে পারে এমন, এক – আমরা নশ্বর পৃথিবীর মাটি দিয়ে তৈরি, দুই – মহাশক্তির নির্দেশ অমান্য করে প্রথম মানব-মানবী নিষিদ্ধ ফল খেয়েছেন।

এই যে খারাপ উপাদানগুলো আমাদের মধ্যে চলে এলো, সেজন্য সেই মহাশক্তি আমাদেরকে পথ নির্দেশনা দিয়েছেন কীভাবে এইসব খারাপ উপাদানের প্রভাব এড়িয়ে আমরা তাঁর জন্য সুন্দর উপহার বানাতে পারি।

প্রতিটি জাতির জন্য তিনি বিভিন্ন যুগে এই নির্দেশনা দিয়েছেন। প্রতিদিন বন্ধু, আত্মীয়, অবন্ধু, অচেনা, চেনা সবার জন্য ভালো কিছু চিন্তা, ভালো কাজ করা। অন্যদের খারাপ কিছু থাকা স্বত্তেও তাদের পাশে দাঁড়ানো, ক্ষমা করা, নম্রতা দেখানো এটা তো আমাদের প্রত্যেকের নিজের হাতে, তাই না?

আর অন্যদের খারাপ কি কি আছে সেটার খতিয়ান না দেখে নিজের কি কি খারাপ উপাদান আছে সেটার দিকে নজর দিলে আমরা যখন মহাশক্তির জন্য উপহার প্রস্তুতে ব্যস্ত হব, তখন উপহারগুলো সুন্দর হবে।

নীরবে কিংবা সরবে, যেভাবেই পারি আমাদের উচিৎ এই সুন্দর উপহার বানিয়ে যাওয়া সেই মহাশক্তির জন্য। মানুষ মানুষের জন্য হচ্ছে সবচেয়ে বড় উপহার।

The best way to serve God is to serve His creations in the nicest possible way so we bring peace and balance in His World;

এই জন্যই Salam, Shalom, ওম-শান্তি খুব প্রয়োজন। সবগুলোর অর্থই ‘শান্তি’।
আলী আহসান প্রিন্স
আলী আহসান প্রিন্স

লেখক পরিচিতিঃ ইউকে প্রবাসী বাংলাদেশী; তিনি পেশায় ম্যাকলারেন রেসিং কোম্পানীতে ম্যানেজমেন্ট কনসালটেন্ট অফ বিজনেস টেকনোলোজি হিসাবে কর্মরত আছেন।

[ঢা-এফএ]

(Visited 7 times, 1 visits today)