আজ শাবনূরের জন্মদিন

  •  
  •  
  •  
  •  

বিনোদন ডেস্ক: বাংলা সিনেমার দর্শকনন্দিত চিত্রনায়িকা শাবনূর। বাংলা চলচ্চিত্রে উপহার দিয়েছেন অসংখ্য ব্যবসাসফল সিনেমা।

আজ ১৭ ডিসেম্বর তার জন্মদিন। বিশেষ এ দিনটি ঘিরে ‘দুই নয়নের আলো’ খ্যাত নায়িকার নেই কোনও বিশেষ আয়োজন।

কিংবদন্তি পরিচালক এহতেশামের হাত ধরে ‘চাঁদনী রাতে’ সিনেমার মাধ্যমে ঢালিউডে অভিষেক হয় শাবনূরের।

১৯৯৩ সালের ১৫ অক্টোবর ‘চাঁদনী রাতে’ মুক্তি পায়। সাব্বিরের বিপরীতে অভিনীত চলচ্চিত্রটি ব্যবসায়িকভাবে ব্যর্থ হয়।

তবে শাবনূরের মুগ্ধতার ইতিহাস শুরু হয় ১৯৯৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত জহিরুল হক পরিচালিত ‘তুমি আমার’ ছবিটি দিয়ে।

এ ছবিতে অমর প্রয়াত চিত্রনায়ক সালমান সঙ্গে জুটি বেঁধে কাজ শুরু করেন তিনি।

সালমান শাহের সঙ্গে জুটি বেঁধে তিনি ১৪টি ছবি করেন। তার সবগুলোই রেকর্ড সংখ্যকভাবে ব্যবসায়িক সাফল্য পায়।

এটি বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে সফল জুটিগুলোর অন্যতম।

তবে সালমান শাহর অকাল মৃত্যুতে সাময়িকভাবে শাবনূরের ক্যারিয়ার হুমকির মুখে পড়লেও তার চিরায়ত বাঙালি প্রেমিকার ইমেজ এবং অসাধারণ অভিনয় ক্ষমতা তাকে দর্শকদের হৃদয়ে শক্ত আসন গড়তে সাহায্য করে।

এর পর রিয়াজ, শাকিল খান, ফেরদৌস ও শাকিব খান এবং নায়ক মান্নার সঙ্গে জনপ্রিয় জুটি গড়ে অসংখ্য ব্যবসাসফল ও জনপ্রিয় সিনেমা উপহার দেন।

সর্বশেষ তাকে ‘পাগল মানুষ’ সিনেমায় দেখা যায়। দীর্ঘবিরতি ভেঙে জাজ মাল্টিমিডিয়ার ‘কাঁটা তারের বেড়া’ নামের সিনেমায় অভিনয় করবেন বলে তিনি জানান। তবে নিজেকে ফিট করে নায়িকা হিসেবেই ফিরতে চান।

শাবনূর ১৯৭৯ সালের যশোর জেলার শার্শা উপজেলার নাভারণে জন্মগ্রহণ করেন। পারিবারিক ভাবে তার নাম রাখা হয় কাজী শারমিন নাহিদ নুপুর।

শাবনূরের বাবার নাম শাহজাহান চৌধুরী। তিন ভাই বোনের মধ্যে সবচেয়ে বড় তিনি। বোন ঝুমুর এবং ভাই তমাল দু’জনেই নিজ নিজ পরিবারসহ অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী।

শাবনূর ২০০৫ সালে মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত দুই নয়নের আলো ছবিতে অভিনয় করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।

তারকা জরিপে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রী বিভাগে ১০ বার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার লাভ করেন তিনি।

২০১১ সালের ৬ ডিসেম্বর ব্যবসায়ী অনিক মাহমুদের সঙ্গে শাবনূরের আংটি বদল হয় এবং ২০১২ সালের ২৮ ডিসেম্বর তাকে বিয়ে করেন।

এরপর থেকে তিনি অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করছেন। সেখানে তিনি নাগরিকত্ব লাভ করেন।

২০১৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর তিনি ছেলে সন্তানের মা হন। তার ছেলের নাম আইজান।

জানা গেছে, নতুন বছরে ভিন্ন লুকে দর্শকের সামনে হাজির হবেন তিনি। এ জন্য নিয়মিত ব্যায়াম করছেন শাবনূর।

দৈনিক খাবারের তালিকায় এনেছেন বেশ পরিবর্তন।

এদিকে শাবনূর অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে এসেছেন কিছুদিন হলো। এবার দেশেই নিজের জন্মদিন পালন করবেন।

তবে বেশ আয়োজন করে নয়, কাছের মানুষের সঙ্গে। আড্ডা আর কেক কাটার মধ্যেই থাকছে সে আয়োজন।

জন্মদিনে সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন এই নায়িকা। তিনি বলেন, ‘চলচ্চিত্র থেকেই আমি আজকের শাবনূর হয়েছি।

আমার কাজ করতে কোনো আপত্তি নেই। তবে বর্তমানে আমি ফিট না। তাই কাজ করতে ইচ্ছে করছিল না।

শরীরে মেদ কমানো অনেক কঠিন একটা কাজ। আমি ওজন কমানোর চেষ্টা করছি।

নিয়ম মেনে চলার চেষ্টা করলেও অনেক সময় তা হয়ে ওঠে না। তবে নতুন বছরে কাজ শুরু করার ইচ্ছা রয়েছে।’

এদিকে নব্বই-পরবর্তী বাংলা চলচ্চিত্রের এ সফল নায়িকা বিশেষ এই দিনটিতে ভক্তদের শুভেচ্ছায় ভাসছেন।

চলচ্চিত্রের সহকর্মীরাও শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। এই শুভেচ্ছা আর ভালোবাসাকেই জীবনের সেরা অর্জন বলে মনে করেন শাবনূর।

শাবনূরের জন্মদিনে ঢাকা১৮ডটকম এর পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা।

ঢা/তাশা

(Visited 4 times, 1 visits today)