আজ এই দিনে: ইতিহাসে ১১ জানুয়ারি

নিউজ ডেস্ক: আজ শুক্রবার, ১১ জানুয়ারি। গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের একাদশতম দিন।

বছর শেষ হতে আরো ৩৫৪ (অধিবর্ষে ৩৫৫) দিন বাকি রয়েছে।

আজকের দিনটি কাল হয়ে যায় অতীত। এই প্রতিটি দিনই এক একটি ইতিহাস।

এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের আজকের এই দিনে কি কি ঘটেছিল। কে কে জন্ম নিয়েছিলেন ও মৃত্যুবরণ করেছিলেন।

ইতিহাসের পাতায় ১১ জানুয়ারি: ঘটনাবলী

১১৫৮ – দ্বিতীয় ভ্লাদিস্লাভ বোহেমিয়ার রাজা হন।
১৬১৩ – মোগল সম্রাট জাহাঙ্গীর ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানিকে সুরাটে কারখানা স্থাপনের অনুমতি দেন।

১৬৯৩ – ইতালির সিসিলিতে মাউন্ট এটনার অগ্ন্যুৎপাতের ফলে সৃষ্ট শক্তিশালী ভূমিকম্পে সিসিলি ও মাল্টায় ব্যপক ধ্বংসযজ্ঞ।
১৭৫৯ – যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম জীবন বীমা কম্পানি যাত্রা শুরু করে।

১৭৭৯ – চিং-থাং কোম্বা মণিপুরের রাজা হিসেবে অভিষিক্ত হন।
১৭৮২ – সিংহলের ত্রিংকোমালির কাছে ব্রিটিশের কাছে ডাচ বাহিনী আত্মসমর্পণ করে।

১৮৪৬ – নন্দকুমার কবিরত্নের সম্পাদনায় পাক্ষিক ‘নিত্য ধর্মানুরঞ্জিতা’ পত্রিকা প্রকাশিত হয়।
১৮৬৬ – অষ্টেলিয়া যাবার পথে জাহাজ ‘লন্ডন’ বিধ্বস্ত হয়ে ২৩১ জনের মৃত্যু।

১৮৭৯ – এ্যাংলো-জুলু যুদ্ধ শুরু।
১৯০৮ – গ্রান্ড ক্যানিয়ন জাতীয় সৌধ তৈরী করা হয়।

১৯২২ – মানবদেহে ডায়াবেটিস রোগের জন্য প্রথমবারের মতো ইনসুলিন ব্যবহার।
১৯২৬ – জেদ্দায় ইবনে সউদ কর্তৃক নিজকে হেজাজের বাদশাহ ঘোষণা করেন।

১৯২৮ – সোভিয়েত রাশিয়ার নেতা জোসেফ স্টালিন তৎকালীন বলশেভিক নেতা লিও ট্রটস্কিকে নির্বাসনে প্রেরণ করেছিলেন।

১৯৩৮ – চীনের কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির ইয়াংসি নদী ব্যুরোর মুখপত্র ‘সিনহুয়া’ ডেইলি উহান শহরের হানখৌতে প্রকাশিত হয়।

১৯৭২- মঙ্গোলিয়া এবং পূর্ব জার্মানি বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদান করে।
১৯৭২ – বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি অস্থায়ী সংবিধান আদেশ জারি করেন। এই ঘোষণা অনুযায়ী একটি গণপরিষদ গঠিত হয়।

১৯৭৬ – ইকুয়েডরে শান্তিপূর্ণ সামরিক অভ্যুত্থান ঘটে।
১৯৭৯ – ইরানের ইসলামী বিপ্লবের সবচেয়ে স্পর্শকাতর সময় চলছিলো।

১৯৯২ – আলজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট শাদলি বেনজাদিদ পদত্যাগ করেন।
২০০২ – কিউবার গুয়ান্টানামো বে অবস্থিত মার্কিন নির্যাতন শিবিরে প্রথম বন্দিদের প্রেরণ করা হয়েছিলো।

এই দিনে যাদের জন্ম: 

১৫৫৪ -জাপানের কোমইয়ো।
১৭৫৫ – আলোজান্ডার হ্যামিলটন, মার্কিন রাজনীতিজ্ঞ।

১৮৪২ – উইলিয়াম জেম্‌স, মার্কিন অগ্রজ মনোবিজ্ঞানী ও দার্শনিক।
১৮৫৯ – লর্ড কার্জন, ভারতের ভাইসরয়।

১৮৬৪ – এইচ. জর্জ সেলফরিজ, যুক্তরাজ্যের সেলফরিজ এন্ড কোং নামের চেইন স্টোরের প্রতিষ্ঠাতা।
১৮৬৬ – লক্ষ্মীনারায়ণ রায়চৌধুরী, ভারতীয় আলোকচিত্র শিল্পী

১৮৬৮ – ছাই ইউয়ানফেই, চীনের আধুনিক শিক্ষাবিদ।
১৮৭৩ – হাইম বিয়ালিক, হিব্রু কবি।

১৯০৩ – জেকব রোসেনফেল্ড, আন্তর্জাতিকতাবাদী যোদ্ধা।
১৯২১ – নীলিমা ইব্রাহিম, বাংলাদেশের শিক্ষাবিদ, সাহিত্যিক ও সমাজকর্মী।

১৯৩৪ – টোনি হোর, ইংরেজ কম্পিউটার বিজ্ঞানী।
১৯৩৮ – মীর শওকত আলী, বীর উত্তম খেতাবপ্রাপ্ত বাংলাদেশী মুক্তিযোদ্ধা, সেক্টর কমান্ডার।

১৯৪২ – আঞ্জুমান আরা বেগম, একুশে পদক বিজয়ী বাংলাদেশী সঙ্গীতশিল্পী।
১৯৪৫ – সাইমন ড্রিং, আন্তর্জাতিক পুরস্কার বিজয়ী বৈদেশিক সংবাদদাতা, টেলিভিশন উপস্থাপক এবং প্রতিবেদন নির্মাতা।

এই দিনে যাদের মৃত্যু হয়:

১৫৫৪ – ডোমেনিকো ঘির্লানদাইয়ো, ইতালির শিল্পী।
১৭৬২ – লুই ফ্রাঁসোয়া রুবিইয়ক, ফরাসি ভাস্কর।

১৮৯১ – জর্জ ওউসমান, পারিসের পুনঃপরিকল্পক।
১৯২৮ – টমাস হার্ডি, ইংরেজ ঔপন্যাসিক।

২০০৮ – এড্‌মান্ড হিলারি নিউজিল্যান্ডের একজন পর্বতারোহী এবং অভিযাত্রী।
২০১৪ – এরিয়েল শ্যারন, ইসরায়েলের ১১তম প্রধানমন্ত্রী।

২০১৪ – মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান, বাংলাদেশের বিচারপতি।

আরও পড়ুন: সাবেক প্রধান বিচারপতি হাবিবুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

২০১৫- চাষী নজরুল ইসলাম, প্রখ্যাত বাঙালি চলচ্চিত্র পরিচালক।

আরও পড়ুন: চাষী নজরুল ইসলামের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

ঢা/তাশা

(Visited 1 times, 1 visits today)